অক্টোবর ২৫, ২০২১

মুক্তিকন্ঠ

ভয়েস অফ ফ্রিডম ফাইটার ১৯৭১

চন্দ্রগঞ্জে মাদ্রাসার শিশুকে বলাৎকার ও পাষবিক নির্যাতন, অধ্যক্ষসহ গ্রেপ্তার ২

মোহাম্মদ হাছান, নির্বাহী সম্পাদকঃ  লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ বাজারে অবস্থিত একটি হাফেজিয়া মাদ্রাসায় শিশু ছাত্রকে বলাৎকার ও পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগে মাদ্রাসার অধ্যক্ষসহ ২জনকে গ্রেপ্তার করেছে চন্দ্রগঞ্জ থানা পুলিশ। চন্দ্রগঞ্জ থানা সূত্রে বিষয়টির সত্যতা পাওয়া যায়।

জানাযায়, লক্ষ্মীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন চন্দ্রগঞ্জ পশ্চিম বাজারস্থ আত্-তামরীন ইন্টারন্যাশনাল হিফযুল কুরআন মাদ্রাসায় নাজেরা বিভাগের আবাসিক শিশু ছাত্র তামিম(১০)(ছদ্মনাম) মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের শিক্ষক হাফেজ মোঃ মাসুম বিল্লাহ (২৪) দ্বারা বলাৎকারের স্বীকার হয়। জানাযায়,  ঘুম থেকে রাতের আধারে খাওয়ার রুমে ডেকে নিয়ে কয়েকদিন বলাৎকার করে শিশুটিকে। ঘটনাটি প্রথম ঘটে (৫ ডিসেম্বর) শনিবার রাতে। এঘটনা কাউকে জানালে তাকে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। সম্প্রতি মাদ্রাসা ১ সপ্তাহের জন্য ছুটি ঘোষণা করলে শিশুুটি অন্য শিশুদের ন্যায় বাড়িতে চলে যায়। পরবর্তীতে মাদ্রাসা খোলা হলেও শিশুটি মাদ্রাসায় আসতে অস্বীকৃতি জানায়। পরবর্তী শিশুটির মায়ের পিঁড়াপিড়িতে শিশুটি তার শিক্ষক কর্তৃক বলাৎকারের কথা জানায়। 

গত শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারী) বিকালে শিশুর মা ও আত্নীয় স্বজন মাদ্রাসায় এসে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওঃ আব্দুর রশিদ মোহাম্মদ ইউসুফকে বিষয়টি জানিয়ে তদন্ত করে দেখার ও অনুরূপ ঘটনা পুনরায় যেন না ঘটে সেজন্য অনুরোধ জানায়। কিন্তু মাদ্রাসার অধ্যক্ষ উক্ত ঘটনার কোন রূপ তদন্ত না করে পরদিন শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারী) ঐ শিশু ছাত্রকে বেদম প্রহার করে আটকে রাখে। পরবর্তীতে সোমবার ( ১ মার্চ)  মোবাইল ফোনে খবর পেয়ে শিশুর মা ও আত্নীয় স্বজন মাদ্রাসায় এসে শিশুটিকে আহত অবস্থায় দেখতে পেয়ে থানা পুলিশে খবর দেয়। চন্দ্রগঞ্জ থানার এসআই মোঃ কামাল উদ্দিন সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক হাফেজ মোঃ মাসুম বিল্লাহ ও মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওঃ আব্দুর রশিদ মোহাম্মদ ইউসুফকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। 

গ্রেপ্তারকৃত হাফেজ মোঃ মাসুম বিল্লাহ (২৪) কুমিল্লা জেলার মনোহর গঞ্জ থানার উত্তর হাওলা ইউপি’র  ফেনুয়া গ্রামের উত্তর ফেনুয়া মৌলভী বাড়ির মোঃ হারুনুর রশিদের ছেলে। সে ঢাকার একটি মাদ্রাসা থেকে হেফজ শেষ করে। 

এছাড়াও ২য় অভিযুক্ত অধ্যক্ষ মাওঃ আব্দুর রশিদ মোহাম্মদ ইউসুফ(৪৫) ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন থানার কাচিয়া ইউপি’র চকডোষ গ্রামের দক্ষিণ চকডোষ ক্বারী সাহেব হুজুরের বাড়ির মৃত ক্বারী সিরাজুল হকের ছেলে।

উল্লেখ্য ভিকটিম শিশুটির সামাজিক এবং তার ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে তার পরিচয়টা এখানে উল্লেখ করা হয় নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একে ফজলুল হক জানান, বিষয়টি জানার সাথে সাথে ঘটনারস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে দিই। এ বিষয়ে মামলা হয়েছে এবং অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আগামীকাল (২ মার্চ) মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে প্রেরণ করা হবে।

শেয়ার করুন