অক্টোবর ২৫, ২০২১

মুক্তিকন্ঠ

ভয়েস অফ ফ্রিডম ফাইটার ১৯৭১

চট্টগ্রামে গাড়ি চাপায় লক্ষ্মীপুরের এএসআই সালাহ উদ্দিনের মৃত্যু

নিহত এএসআই সালাহ উদ্দিন

মুক্তিকন্ঠ ডেস্কঃ

বীর মুক্তিযোদ্ধা বাবার স্বপ্ন ছিল ছেলে বাড়ি আসবে! আসলেই তাকে বিয়ে করাবে। মেয়েও ঠিক করে রেখেছে কিন্তু মাদক কারবারীর হিংস্রতায় আর বাস্তবে রূপ নিতে পারলো না। বলছি মাদক কারবারীর মাইক্রোবাসের নিচে পিষ্ট এএসআই সালাহ উদ্দিনের কথা।

গত শুক্রবার (১১ জুন) ভোর ৪টার দিকে চট্টগ্রামের চান্দগাঁও থানার এএসআই সালাহ উদ্দিন ডিউটিরত অবস্থায় একটি মাইক্রোবাসের নিচে পিষ্ট হয়ে মারা যায়।

জানাযায়, এএসআই সালাহ উদ্দিনের ডিউটি ছিল চান্দগাঁও থানাধীন কাপ্তাই রাস্তার মাথায়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে একটি মাইক্রোবাসে করে মাদক আসতে পারে। সময়ানুযায়ী মাইক্রোবাস আসলে থামানোর জন্য সামনে দাড়ালে গাড়িটি না থামিয়ে সালাহ উদ্দিনের গায়ের উপর দিয়ে তাকে পিষ্ট করে চলে যায়। আহত অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। নিহত সালাহ উদ্দিন চট্টগ্রাম জেলার চান্দগাঁও থানায় সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

তার মৃত্যুতে তার গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার হাজিরপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ জয়পুর গ্রামের কাজী বাড়িতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। তার পিতা অবসরপ্রাপ্ত কনস্টেবল ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী নাদেরুজ্জামান পাটোয়ারী কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন ছেলের বিয়ের জন্য মেয়ে ঠিক করে রেখেছি, ছুটিতে আসলে বিয়ে হবে কিন্তু আমার ছেলে আসলো লাশ হয়ে। নিহত সালাহ উদ্দিনের ছোট ভাই অনার্সে এবং ছোট বোন ১০ম শ্রেণীতে পড়ে। উপস্থিত এলাকাবাসীর অনেকে দাবী করেন নিহতের ছোট ভাই কাজী আলাউদ্দিনের একটি চাকুরীর ব্যবস্থা যদি প্রশাসনের মাধ্যমে করে দেওয়া হয় তাহলে সংসারের হাল ধরতে সুবিধা হবে। নিহত এএসআই সালাহ উদ্দিনের সততার কথা বললে তার জরাজীর্ণ ঘরই তা প্রমাণ করে।

শুক্রবার বিকালে নিহত সালাউ উদ্দিনকে তার পারিবারিক কবরস্থানে দাপন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন লক্ষ্মীপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) মংনেথোয়াই মারমা, চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে ফজলুল হক সহ কয়েকশত এলাকাবাসী।

শেয়ার করুন