অক্টোবর ২৫, ২০২১

মুক্তিকন্ঠ

ভয়েস অফ ফ্রিডম ফাইটার ১৯৭১

কোন ভাবেই মানছেনা লকডাউন, চন্দ্রগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ বাজারে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। এসময় বিভিন্ন অনিয়মের জন্য ৭ টি দোকানে ও ১ জন সিএনজি ড্রাইভারকে জমিমানা করা হয়।

বর্তমান বৈশ্বিক সমস্যা করোনা ভাইরাসের ২য় ঢেউ মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন চলছে ২৩শে জুলাই হতে ৫আগষ্ট পর্যন্ত। তারই ধারাবাহিকতায় (২৯ জুলাই) বৃহস্প্রতিবার বিকাল ৫টার দিকে চন্দ্রগঞ্জ বাজারে লকডাউন বাস্তবায়নে র‌্যাব, পুলিশ ও লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসনের উপস্থিতিতে  ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতে নেতৃত্বদেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রিপামনি দেবী, ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় চন্দ্রগঞ্জ বাজারের ৭টি দোকানে ১০হাজার ৫ শত টাকা ও একজন সিএনজি চালককে ২০০টাকাসহ মোট ১০ হাজার ৭০০শত টাকা জরিমানা করা হয়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, মানুষ লকডাউন মানতে অনিহা প্রকাশ করছে। কারনে অকারনে বিনাপ্রয়োজনেও অনেককে বাজারে ঘুরতে দেখা যায়। এছাড়াও চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন জকসিন বাজাররের একাংশ, মান্দারী, বটতলী, পোদ্দার বাজার, দত্তপাড়া, হাজিরপাড়া, চরচামিতা, চন্দ্রগঞ্জ, বসুরহাট, দাসেরহাটসহ যতগুলো হাটবাজার আছে সবখানেই সবাইকে লকডাউনের ব্যাপারে উদাসীন দেখা গেছে। ব্যবসায়ীরা কেউ হাফ সাটার কেউ ফুল সাটার খুলে ব্যবসা পরিচালনা করছে।

এদিকে চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে ফজলুল হক সর্বদা লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে, কিন্তু জনবল কমতির কারনে পুলিশ প্রশাসন, সাধারন জনগন ও ব্যবসয়ীরা এক প্রকার চোর পুলিশ, চোর পুলিশ খেলছে।

লকডাউন বাস্তবায়নে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে, বিনা প্রয়োজনে বাহিরে না যাওয়ার জন্য ও মাস্ক পরিধান করার ব্যাপারে সবাইকে অনুরোধ করেন বিশিষ্ট জনরা।

শেয়ার করুন