ডিসেম্বর ৪, ২০২১

মুক্তিকন্ঠ

ভয়েস অফ ফ্রিডম ফাইটার ১৯৭১

জনমনে হতাশা !! প্রতাপগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি নির্বাচন-২০২১

ব্যালেট নাম্বারসহ প্রার্থীদের ছবি

মুক্তিকন্ঠ ডেস্কঃ

কাকে নির্বাচিত করবেন আপনার সন্তানের বিদ্যালয় পরিচালনায়??

আপনার সন্তান যে স্কুলে পড়ে, সে স্কুলে একটি নির্বাচিত কমিটি গঠন করা আপনার অধিকার। ২০০৯ এ বাংলাদেশ সরকারের গেজেট দ্বারা আপনি এ অধিকার প্রাপ্ত যদি আপনার সন্তান সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত থাকে। তাই যাকে তাকে নির্বাচিত না করে আপনার অধিকারের প্রতিফলন করুন প্রার্থীর শিক্ষাগত যোগ্যতা, ন্যায়-নীতি, আদর্শ, নৈতিকতা, চরিত্রগত মর্যাদা এবং সমাজে তার গ্রহণযোগ্যতার বিচার বিশ্লেষণ করে। বলছি লক্ষ্মীপুর জেলার ঐতিহ্যবাহী, জেলায় ১ম এবং কুমিল্লা বোর্ডে ৮ম স্থান অধিকার অর্জনকারী (ফলাফলের ভিত্তিতে) প্রতাপগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি-২০২১ এর কথা। যেখানে মোট প্রার্থী ৯ জন, যার মধ্যে নির্বাচিত হবে ৪ জন।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত ১১ অক্টোবর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আবু তালেব নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন, যা বিদ্যালয় নোটিশ বোর্ড ও বিদ্যালয়ের ফেইসবুক আইডির মাধ্যমে জানানো হয়। ইতোমধ্যে গত ২১ অক্টোবর হতে ২৬ অক্টোবরের মধ্যে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র গ্রহণ, জমা এবং বৈধ প্রার্থীদের তালিকা যাচাই বাছাইয়ের কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।  প্রিসাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত থাকবেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আবু তালেব ।

আগামী ৬ নভেম্বর শনিবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীরা হলেন- বিজয় কুরী (ব্যালট নং-০১), আলতাফ হোসেন সবুজ (ব্যালট নং-০২), আব্দুল হালিম (ব্যালট নং-০৩), এনামুল হক রতন (ব্যালট নং-০৪), মো. জহিরুল ইসলাম ভিপি জহির (ব্যালট নং-০৫), মো. দেলোয়ার হোসেন (ব্যালট নং-০৬), নজরুল ইসলাম টিটু (ব্যালট নং-০৭), বেল্লাল হোসেন মানিক (ব্যালট নং-০৮) ও মো. মামুনুর রশিদ বাবলু (ব্যালট নং-০৯)।

ইতোমধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ১জন দাতা সদস্য, ১জন সংরক্ষিত মহিলা অভিভাবক সদস্য, ২জন পুরুষ শিক্ষক প্রতিনিধি ও ১জন সংরক্ষিত মহিলা শিক্ষক প্রতিনিধি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার কয়েকজন গণ্যমান্য ব্যক্তি হতাশা প্রকাশ করেন কিছু কিছু  পদের স্থায়িত্ব নিয়ে এবং নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন অভিভাবক জানান প্রয়োজনে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ফুলগাছা উচ্চ বিদ্যালয়ের ন্যায় তারাও মহামান্য হাইকোর্টে রিট আবেদন করবেন।

নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার ১মাস পূর্ব থেকেই অনেক প্রার্থী তাদের প্রচারণা শুরু করেছেন অভিভাবকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে। জেলার শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় হওয়ায় এই বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি নির্বাচন হয় অনেক জাক-জমকপূর্ণভাবে। অনুপস্থিত অভিভাবক ছাড়া প্রায় সকল অভিভাবকই ভোট দেওয়ার জন্য বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আসেন।

আগামী (৬ নভেম্বর) শনিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে এই ভোট কার্যক্রম চলবে। বিদ্যালয়ের মোট ভোটার সংখ্যা পুরুষ ও মহিলাসহ মোট ১৭৫৫ জন। যেহেতু এটা কোন রাজনৈতিক ভোট না, তাই রাজনৈতিক প্রভাবমুক্তভাবে এই ভোট গ্রহণ কার্যক্রম পরিচালিত হবে এমনটাই আশা এলাকাবাসী, অভিভাবক ও অধিকাংশ প্রার্থীর।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. সিরাজুল ইসলাম জানিয়েছেন, ৪জন অভিভাবক সদস্য সরাসরি ভোটারদের মাধ্যমে নির্বাচিত হবেন। প্রধান শিক্ষক বলেন, নির্বাচনকে উৎসবমূখর এবং প্রভাবমুক্ত করতে প্রশাসনিক সহযোগিতাসহ সবধরণের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন