মে ২২, ২০২২

মুক্তিকন্ঠ

ভয়েস অফ ফ্রিডম ফাইটার ১৯৭১

লক্ষ্মীপুরে নাতীকে বাঁচাতে গিয়ে বৃদ্ধ নানা নিহত! আটক ১

গ্রেপ্তারকৃত সুজন

মুক্তিকন্ঠ ডেস্কঃ

লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার দক্ষিণ চন্দ্রপুর গ্রামে নাতিকে কিশোর গ্যাং এর হামলার থেকে রক্ষা করতে গেলে গ্যাং সদস্যরা নানা চাঁদ মিয়া (৭০) কে পিটিয়ে হত্যা করেছে। নিহত চাঁদ মিয়া স্থানীয় জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন ছিলেন বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ সুজন (১৯) নামে কিশোর গ্যাং এর এক সদস্যকে আটক ও লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।
জানাযায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে লক্ষ্মীপুর জেলার সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন রাজাপুর ভূইয়া মার্কেটের একটি ওয়ার্কসপে কর্মরত বৃদ্ধ চাঁদ মিয়ার নাতী কিশোর ইমরান স্থানীয় কিশোর গ্যাং এর এক সদস্যকে তুই সম্বোধন করায় গ্যাং লিডার বাপ্পীর নেতৃত্বে তাকে মারধর শুরু করে। এ সময় ইমরান দৌড়ে তার নানার বাড়িতে পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়। এ ঘটনাটি সে স্থানীয় ইউপি সদস্যকে অবহিত করার কথা জানাবে বললে গ্যাং সদস্যরা আরো বেশী ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এক পর্যায়ে তারা ইমরানকে তুলে নেওয়ার জন্য দক্ষিণ চন্দ্রপুর গ্রামে তার নানার বাড়িতে এসে হামলা করে। এ সময় ইমরানের নানা চাঁদ মিয়া হামলা কারিদের শান্ত করতে এগিয়ে গেলে গ্যাং সদস্যরা তাকে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। এতে ঘটনাস্থলেই চাঁদ মিয়া মারা যান। খবর পেয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক হান্নানের নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে গিয়ে কিশোর গ্যাং এর সদস্য জামিরতলী গ্রামের সুজন (১৯) কে আটক ও নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। এ ব্যাপারে নিহতের ছেলে নুর হোসেন বাদী হয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এস আই হান্নান জানান পিটুনীতেই বৃদ্ধ চাঁদ মিয়ার মৃত্যু হয়েছে।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, সম্প্রতি এই এলাকায় কিশোর গ্যাং এর সদস্যদের অপতৎপরতা আশংকা জনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। ঈদের আগের দিন তারা চন্দ্রপুর গ্রামের সিএনজি চালক লোকমান সহ পরিবারের ৩জনকে পিটিয়ে আহত করেছে। প্রতিদিন কোননা কোন অঘটন তারা ঘটিয়ে চলছে।
এ ব্যাপারে চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মোসলেহ্ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার সাথে জড়িত একজনকে আটক করেছি। মামলার প্রস্তুতি চলছে এবং অন্যান্য আসামীদের ধরার ব্যাপারে অভিযান অব্যাহত আছে।

শেয়ার করুন