অক্টোবর ৭, ২০২২

মুক্তিকন্ঠ

ভয়েস অফ ফ্রিডম ফাইটার ১৯৭১

লক্ষ্মীপুরে আসামীরা জামিনে এসে বাদীকে গৃহবন্দিকরে জমি দখল

গৃহবন্ধী মুন্নী

মুক্তিকন্ঠ ডেস্কঃ
লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার জয়রামপুর গ্রামে আসামীরা জামিনে বেরিয়ে এসে বাদীকে গৃহবন্দীকরে জমি জবর দখল করার খবর পাওয়াগেছে।

খবর পেয়ে দত্তপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ এএসআই নুর উদ্দিন বুধবার বিকালে ঘরের তালা ভেঙ্গে মুন্নী (৩৫)নামের ওই মামলার বাদীকে বন্দিদশা থেকে উদ্ধার করেছে।
জানাযায়, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর জয়পুর ইউনিয়নের জয়রামপুর গ্রামের মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে মানিক ও জাহাঙ্গীরের সাথে তাদের স্বামীপরিত্যাক্তা বোন মুন্নী বেগমের সাথে বিরোধ চলে আসছিল। মুন্নীর টাকা আত্নসাৎ ও তাকে মারধর করায় ভাই জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

গত সোমবার ১মাস ১০ দিন হাজতবাস শেষে জাহাঙ্গীর জামিনে এসে মুন্নীকে নানা হুমকী ধমকী দিয়ে আসছে। মঙ্গলবার রাতে মুন্নীকে একটি ঘরে তালা বদ্ধকরে আটক রেখে তার খরিদকৃত জমিতে জোর পূর্বক ঘর নির্মাণ করে দখল করে নিতে থাকে। খবর পেয়ে এ প্রতিবেদক সহ সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ মোসলেহ্ উদ্দিনকে জানালে দত্তপাড়া তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ এ এস আই নুর উদ্দিনের নেতৃত্বে ঘরের তালা ভেঙ্গে ১৮ ঘন্টাপর মুন্নীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টেরপেয়ে তার ভাই জাহাঙ্গীর ও  মানিক পালিয়ে যায়। মুন্নীর বৃদ্ধামা সমহেরা বেগম জানান, জাহাঙ্গীর হাজত থেকে জামিনে বেরিয়ে এসে তাকেও মারধর করেছে। তার থেকে জোর পূর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধায় মুন্নীকে মারধর করে একটি ঘরে তালাবদ্ধ করে রেখে তার খরিদকৃত জমিতে জোর পূর্বক দখলে নিয়েছে। মুন্নীকে তালাবদ্ধ রাখার পর তিনি বিভিন্ন জনের কাছে মুন্নীকে উদ্ধারের জন্য গেলেও তাকে কেউ উদ্ধার করতে এগিয়ে আসেনি।
চন্দ্রগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মোসলেহ উদ্দিন জানান, ভিকটিমকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি ও আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

শেয়ার করুন

আরও পড়তে পারেন..