নভেম্বর ২৬, ২০২২

মুক্তিকন্ঠ

ভয়েস অফ ফ্রিডম ফাইটার ১৯৭১

লক্ষ্মীপুরে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, ফায়ার সার্ভিস স্থাপনের দাবী

আগুনে পুড়ছে অসহায় মানুষের স্বপ্ন।

মুক্তিকন্ঠ ডেস্কঃ

লক্ষ্মীপুর জেলায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। উপস্থিত ব্যবসায়ী ও এলাকার জনগণের আকুন্ঠ দাবী একটি ফায়ার স্টেশন স্থাপনের।

সোমবার (২১ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে  সদর উপজেলাধীন চন্দ্রগঞ্জ থানার চন্দ্রগঞ্জ বাজারের নোয়াখালী লক্ষ্মীপুর জেলার সীমান্তের বাঁধের গোড়া নামক স্থানে এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায় বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরু মিয়ার মেয়ে ফারহানা’র ঘর থেকেই আগুনের সূত্রপাত হয়। এতে প্রায় ১০-১৫ দোকান ভস্মীভূত ও ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এতে অধিকাংশই  ভাঙ্গারী দোকান, মুদি সামগ্রীর গুদাম ও পাটর্সের দোকান ছিল। এখনো ক্ষয়ক্ষতির পরিমান জানা যায় নি।

ঘটনা শুনেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন চন্দ্রগঞ্জ বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন ও চন্দ্রগঞ্জ বাজার বণিক সমিতি বাস্তবায়ন আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক মাওঃ মোঃ আব্দুল ‍কুদ্দুছ।

অগ্নিকান্ড ঘটার ২৫মি. মধ্যে বেগমগঞ্জের ফায়ার ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছালেও প্রায় ১ঘন্টা পরে ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছেছে লক্ষ্মীপুরের ফায়ার সার্ভিস ইউনিট। ভাগ্য যদি বেগমগঞ্জ ইউনিট বলত আমরা নোয়াখালীর আমরা লক্ষ্মীপুরে যাবো না, তখন হয়তো পুরো চন্দ্রগঞ্জ বাজার পুড়ে ছাই হয়ে যেত। আর সাধারন জনগণতো মোবাইলে ছবি তোলা আর ভিডিও করা নিয়ে ব্যস্ত ছিল। কিছু ‍উৎসাহী যুবকের কঠোর প্রচেষ্টা ছিল আগুন নিভানোর কাজে।

বেগমগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর পরিচালক উদ্দীপন ভক্ত জানান, আমরা ঘটনাস্থলে এসেই ১৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসি। প্রায় ১০টি দোকানের মত ক্ষতিগ্রস্থ হয়। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান এখনো বলা যাচ্ছে না। বৈদ্যুতিক সর্ট-সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে ধারনা করা হয়।

শেয়ার করুন